Home / মিডিয়া নিউজ / হুমায়ূন আহমেদের সন্তান হলে তার মতোই কথা বলা উচিত : শাওন

হুমায়ূন আহমেদের সন্তান হলে তার মতোই কথা বলা উচিত : শাওন

প্রয়াত কথা সাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদের উপন্যাস অবলম্বনে নির্মিত চলচ্চিত্র ’দেবী’ এখন বেশ

জটিল অবস্থায় আছে। সিনেমাটি নির্মাণ করেছেন অনম বিশ্বাস আর প্রযোজনা করেছেন জয়া আহসান।

প্রথমে এ নিয়ে আপত্তি তুলেছেন হুমায়ূনকন্যা অভিনেত্রী শীলা আহমেদ। পরবর্তীতে গতকাল এ নিয়ে

কথা বলে হুমায়ূন পুত্র নুহাশ। তিনি আঙ্গুল তোলেন হুমায়ূন পত্নী মেহের আফরোজ শাওনের দিকে।

’দেবী’ প্রসঙ্গ নিয়ে শাওনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়। তিনি বলেন ,’ তাঁরা অহেতুক এ নিয়ে কথা বাড়াচ্ছে। কেউ যদি মনে করে আমার কাছ থেকে কোন কিছুর অনুমতি নিলে হবে। সে যদি আমার কাছে আসেন। তখন আমার বিবেচনায় যেটা বলে।সেটাই তো করবো। আমার ইচ্ছে আমি অনুমতি দিয়েছি। অনুমতি নেওয়াটা প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের কাজ। আমি যতদূর জানি প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের সবার কাছ থেকে অনুমতি নেওয়ার কথা। আমি এটুকু জানি। এখন আমার কী কাজ কার কার থেকে অনুমতি নিলো কার কাছ থেকে অনুমতি নিলো না, সেটা দেখার? আমার অপরাধটা কী বুঝলাম না।’

নুহাশ জানিয়েছেন, ’হুমায়ূন আহমেদের সমস্ত সৃষ্টি এখন তার উত্তরাধিকারদের স্বত্বাধিকারে। আমাদের চার ভাইবোনের অনুমতি ছাড়া যে এই সিনেমাটি মুক্তি দেয়ার কাজ চলছিলো, সেটা সম্পূর্ণ আইন বহির্ভূত ছিল। যখন এই সিনেমার প্রযোজক জয়া আহসান এই বিষয়ে জানলেন, তিনি সাথে সাথেই আমার পরিবারের সাথে যোগাযোগ করলেন এবং আমাদের চারজনের অনুমতি নেয়ার জন্য আইনগত সব ব্যাবস্থা নিলেন। তিনি এই সিনেমার মার্কেটিংসহ বাকি কাজ বন্ধ রাখলেন আমাদের চার ভাইবোনের চুক্তিপত্রে সাইন হওয়া পর্যন্ত।’ এর উত্তরে শাওন বলেন,’ তাহলে তো হলোই। সিনেমার টিজার বের হয়েছে। নিশ্চয়ই প্রযোজক তাদের কাছ থেকে অনুমতি নিয়েছেন’।

বর্তমান সময়ের চেয়ে ভবিষ্যতে নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন নুহাশ। অনেক নির্মাতাই আমাদেরকে জানিয়েছেন তারা আমার বাবার স্ত্রী-মেহের আফরোজ শাওনকে এককালীন কিছু টাকা দিয়ে অনুমতি নিয়েছেন এবং নাটক নির্মাণ করেছেন। শাওন আমার বাবার ’ইনটেলেকচুয়াল প্রপার্টির’ (গল্প, উপন্যাস, তার সৃষ্ট যেকোনো কিছু) একমাত্র উত্তরাধিকার না। তাই আমাদের চার ভাইবোনের অনুমতি ছাড়া, শুধুমাত্র শাওনের অনুমতি নিয়ে, হুমায়ূন আহমেদের সৃষ্টি নিয়ে কাজ করা সম্পূর্ণ বেআইনি। এ নিয়ে শাওন বলেন,’ আমি প্রতিটা মানুষকে সম্মান দিয়ে কথা বলি। সবসময়ই কথা বলবো। ছোট-বড় সবাইকে তার প্রাপ্য সম্মানটা দেয়ার চেষ্টা করি। হুমায়ূন আহমেদের সন্তান হলে তার মতোই কথা বলা উচিত। এ নিয়ে পাবলিকলি কাউকে হেয় করে কথা বলার কোন ইচ্ছে আমার নেই। আর হুমায়ূন আহমেদের কোন কোন সম্পত্তি আমি বিক্রী করে খাচ্ছি তারও যেন হিসেব তাঁরা দেয়। আমি তার কিছু গল্প কিংবা উপন্যাস নিয়ে কাজ করেছি। তারা যদি তা নিয়ে কাজ করতে চায়। আমি কখনো নিষেধ করি কিনা সেটা দেখুক। এখানে হিংসা- প্রতিহিংসা নেই কোন। এটা কোন যুদ্ধ নয়।’ সামনে কোন আইনী লড়াই হবে বলে মনে করেন? ’আইন সবাই বুঝে। এ নিয়ে আর কিছু এই মুহূর্তে বলতে চাচ্ছি না।’ বললেন শাওন।

Check Also

সংবাদ পাঠিকাকে বিয়ে করতে যাচ্ছেন তাহসান

অভিনেতা, গায়ক তাহসান খান ও অভিনেত্রী মিথিলা ভালোবেসে সুখের সংসার সাজিয়েছিলেন। সেই সংসারের ইতি টানেন …

Leave a Reply

Your email address will not be published.