Home / মিডিয়া নিউজ / বছরে দেড় কোটি টাকা সংসার খরচ দিলে কোনো ত্রুটিই থাকত না: হাসিন

বছরে দেড় কোটি টাকা সংসার খরচ দিলে কোনো ত্রুটিই থাকত না: হাসিন

ভারতীয় পেসার মুহাম্মদ সামি ও তার স্ত্রী হাসিন জাহানের মধ্যে অভিযোগ-পাল্টাঅভিযোগের পালা

চলছেই, যা অব্যাহত ছিল বৃহস্পতিবারেও। এরই মাঝে সুপ্রিমকোর্ট নিযুক্ত ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের

প্রশাসকদের কমিটির (সিওএ) কাছে হাসিন জাহানের অভিযোগপত্র ও এফআইআরের প্রতিলিপি পাঠিয়েছেন তার আইনজীবী।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় সংবাদ সম্মেলন করে হাসিনের আইনজীবী জাকির হুসেন বলেন, ’ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের সঙ্গে কথা হয়েছে। ইতিমধ্যেই সামির বিরুদ্ধে হাসিনের অভিযোগপত্র ও এফআইআরের প্রতিলিপি সুপ্রিমকোর্ট নিযুক্ত প্রশাসকদের কমিটির চেয়ারম্যান বিনোদ রাইয়ের কাছে পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে।

এদিন নয়াদিল্লিতে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের দুর্নীতি দমন শাখার প্রধান নীরজ কুমার তিন ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদ করেন মুহাম্মদ সামিকে। শুক্রবার বৈঠক হওয়ার কথা রয়েছে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের। যেখানে আইপিএল নিয়ে আলোচনা হবে। সেখানে উঠতে পারে সামির প্রসঙ্গ। বৈঠকে থাকতে পারেন আইপিএলে সামির দল দিল্লি ডেয়ারডেভিলসের কর্মকর্তারাও।-খবর আনন্দবাজার অনলাইনের।

বৈঠকেই আভাস পাওয়া যেতে পারে সামির এবার আইপিএল খেলার সম্ভাবনা কতটা। যদি সামিকে না পাওয়া যায়, এমন আশঙ্কায় দিল্লি ডেয়ারডেভিলস কর্মকর্তারা তার বিকল্পও খুঁজতে শুরু করেছেন বলে খবর পাওয়া গেছে।

এরই মাঝে মুহাম্মদ সামি প্রচারমাধ্যমের কাছে পাল্টা অভিযোগ করেন, আগের বিয়ে সম্পর্কে হাসিন আমাকে সম্পূর্ণ অন্ধকারে রেখেছিল। হাসিনের আগের পক্ষের যে দুই কন্যাসন্তান রয়েছে তা আমি জানতাম না। বিয়ের পর জানতে পারি। তার আগে আমাকে বলা হয়েছিল- ওই দুই কন্যাসন্তান ওর বোনের।

যার উত্তরে হাসিনের আইনজীবী বলেন, সামিকে বিয়ের আগে রবীন্দ্রনগরে ভাড়া থাকত হাসিন। সেখানে ও রোজ যেত। হাসিনের আগের বিয়ের ব্যাপারে সব কিছু জেনেই ওকে বিয়ে করেছিল সামি। এখন নিজেকে বাঁচাতে এসব বলছে।

হাসিন এতদিন বলছিলেন যে, তাকে সংসার খরচের জন্য ৫০ হাজার টাকার বেশি দেয়া হতো না। কিন্তু প্রচারমাধ্যমের কাছে সামির অভিযোগ, তার ডেবিট কার্ড থেকে বছরে দেড় কোটি টাকা খরচ করেছেন তার স্ত্রী। জবাবে হাসিন এদিন বলেন, বছরে দেড় কোটি টাকা সংসার চালানোর জন্য যদি সামি দিত, তা হলে তো আর কোনো ত্রুটিই থাকত না।

হাসিনের আইনজীবী বলছেন, আদালতে ব্যাংকের লেনদেনের কাগজ পেশ করুন সামি। তা হলেই সব প্রমাণ হয়ে যাবে। এসব অভিযোগ মিথ্যা।

হাসিন এর আগে বলেছিলেন, সামির কোনো সম্পত্তিতে তার কোনো মালিকানা নেই। কিন্তু ইতিমধ্যেই জানা গেছে, গত নভেম্বরেই সিউড়িতে হাসিনের নামে বাড়ি কিনেছিলেন সামি। যার উত্তরে এদিন হাসিন ও তার আইনজীবীর মন্তব্যে ফারাক লক্ষ্য করা গেছে। হাসিন বলছেন, মডেলিং করার সময় আমার টাকা ও চেক জমা করতাম সামির অ্যাকাউন্টে। সেই টাকার সঙ্গে আরও কিছু টাকা যোগ করে ওই বাড়িটা কেনা হয়েছিল।

হাসিনের আইনজীবীর বক্তব্য, কলকাতায় কাটজুনগরের ফ্ল্যাটে হাসিনের মালিকানা না রেখে কেন সিউড়িতে বাড়ি কিনতে হল? এর পেছনে হাসিনকে ওখানে ফেলে রাখার ষড়যন্ত্র স্পষ্ট। তদন্তে সব পরিষ্কার হয়ে যাবে।

Check Also

সংবাদ পাঠিকাকে বিয়ে করতে যাচ্ছেন তাহসান

অভিনেতা, গায়ক তাহসান খান ও অভিনেত্রী মিথিলা ভালোবেসে সুখের সংসার সাজিয়েছিলেন। সেই সংসারের ইতি টানেন …

Leave a Reply

Your email address will not be published.