Home / মিডিয়া নিউজ / কোন অপরাধে কাঠগড়ায় শাকিব?

কোন অপরাধে কাঠগড়ায় শাকিব?

আদালত কক্ষে কাঠগড়ায় দাঁড়িয়ে আছেন ঢাকাই ছবির নায়ক শাকিব খান। আছেন আইনজীবী ও

বিচারক। জেরা চলছে। কিন্তু কি অপরাধ তার? কোন অপরাধের দায়ে কাঠগড়ায় দাড়াতে হলো শাকিবকে।

খোজ নিয়ে জানা গেছে, দুজনকে খুনের দায়ে কাঠগড়ায় দাড়াতে হয়েছে শাকিবকে। কাকে খুন করলেন শাকিব? শুনে অবাক হচ্ছেন? অবাক হওয়াটাই স্বাভাবিক। এমনটি বাস্তবে ঘটেনি।ঘটেছে ‘কালপ্রিট’ সিনেমার সেটে। যদিও শুরুতে এই ছবিটির নাম ছিল ‘একটি প্রেম দরকার মাননীয় সরকার’।

গতকাল মঙ্গলবার ছবিটির শুটিংয়ে দেখা গেল শাকিব খানকে অভিনয় করতে। এফডিসির ৩ নম্বর শুটিং ফ্লোরে আদালতের সেট বানিয়ে এই শুটিং করছিলেন ‘কালপ্রিট’ ছবির পরিচালক শাহিন সুমন।

কাঠগড়ায় কেন শাকিব এ বিষয়ে শাহিন সুমন বলেন, ‘আসলে গল্পের প্রয়োজনেই কাঠগড়ায় দাঁড়িয়েছেন শাকিব খান। মূলত ছবির গল্পে দেখা যাবে, দুটি খুনের অভিযোগে তিনি আদালতে এসেছেন। কাকে খুন করেছেন, কেন খুন করেছেন তা এখনই বলা যাবে না। দর্শক হলে গিয়ে বাকিটা বুঝতে পারবেন।’

ছবির নাম পাল্টে ফেলা প্রসঙ্গে পরিচালক বলেন, “আমার ছবির নাম ছিল ‘একটি প্রেম দরকার মাননীয় সরকার’। এই নামেই ছবির মহরত করেছিলাম। কিন্তু গল্পের প্রয়োজনে ছবির নামটি বদল করা হয়েছে। এখন ছবির নাম রাখা হয়েছে ‘কালপ্রিট’।

পরিচলক আরও বললেন, এফডিসিতে টানা ৩ দিন শুটিং চলবে ছবিটির। আদালতের সিক্যুয়েন্স শেষ হলে এরপর কিছু ফাইটের দৃশ্যে করবো। শাকিব-বুবলী দুজনেই ছবির শুটিংয়ে অংশ নিচ্ছেন। ছবিতে দর্শক ভালো একটি গল্প পাবেন। নির্মাণের ক্ষেত্রেও বৈচিত্র্য রাখার চেষ্টা থাকবে আমাদের।

ছবির বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করবেন বুবলি, সাদেক বাচ্চু, মিশা সওদাগর, অমিত হাসান, শিবা সানু, ডন, সাবেরী আলম, সুচিস্মিতা মৃদুলা।

পরিচালক শাহীন সুমন ও নায়ক শাকিব খান জুটির ২১তম ছবি ‘একটি প্রেম দরকার মাননীয় সরকার’। সবশেষ শাহীন সুমনের পরিচালনায় ২০১৫ সালে ‘লাভ ম্যারেজ’ ছবিতে অভিনয় করেন শাকিব খান। শাহীন সুমনের পরিচালনায় শাকিব অভিনীত লাভ ম্যারেজ, নষ্ট, খোদার পরে মা, মনে বড় কষ্ট, একবুক জ্বালা, টাইগার নাম্বার ওয়ান, সন্তান আমার অহংকার ছবিগুলো উল্লেখযোগ্যে।​

Check Also

সংবাদ পাঠিকাকে বিয়ে করতে যাচ্ছেন তাহসান

অভিনেতা, গায়ক তাহসান খান ও অভিনেত্রী মিথিলা ভালোবেসে সুখের সংসার সাজিয়েছিলেন। সেই সংসারের ইতি টানেন …

Leave a Reply

Your email address will not be published.